আপনার স্মার্টফোনটি বৈধ তো!

১৫ ডিজিটের IMEI নাম্বার সকল ফোনেই ইউনিক। এই নাম্বার দিয়েই আপনার ফোন আইডেন্টিফাই করে টেলিকম অপারেটররা। এতোদিন গ্রাহকদের এই নাম্বার নিয়ে মাথাব্যাথা না থাকলেও এইবার একটু নড়েচড়ে বসতেই হবে। কারন আগামী মঙ্গলবার থেকেই গ্রাহক জানতে পারবেন তার ব্যবহৃত ফোনটির IMEI বাংলাদেশ টেযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) ডেটাবেজে আছে কি নেই? সাধারণত বৈধ ভাবে আমদানীকৃত ফোনগুলোই শুধু এই ডাটাবেসে থাকবে।

এর জন্যে গ্রাহককে তার ১৫ ডিজিটের আইএমইআই নম্বরটি এমএমএস করে সেন্ড করতে হবে ১৬০০২ নাম্বারে। ফিরতি মেসেজে গ্রাহককে জানিয়ে দেয়া হবে যে তার ফোনটি ডাটাবেসে আছে কি নাহ।

কিভাবে জানবেন?

  • প্রথমেই *#06# চেপে আপনার ফোনের IMEI জেনে নিন।
  • এরপর আপনার ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে KYD স্পেস আপনার ১৫ ডিজিটেড IMEI নাম্বারটি লিখুন।
  • পাঠিয়ে দিন ১৬০০২  এই নাম্বারে।

সম্প্রতি মোবাইল ইম্পোটার্স অ্যাসোশিয়েশনের পক্ষ থেকে বিটিআরসিতে স্থাপন করা হয়েছে আইএমইআই এরএকটি ডেটাবেজ। সেখানে মোবাইল ফোন অপারেটরদের আমদানী করা সকল বৈধ ফোনের আইএমইআই তথ্য থাকছে। একই সঙ্গে মোবাইল ফোন অপারেটদের নেটওয়ার্কে থাকা আইএমইআই-ও রাখা হচ্ছে সেখানে। তবে বৈধভাবে বা অবৈধভাবে যে কোনো পদ্ধতিতে দেশে আসুক না কেনো আগামী কয়েক মাসে যে সব আইএমইআই এই ডেটাবেজে ঢুকবে সেগুলো বাতিল না হওয়া পর্যন্ত কাজ করবে।

4 comments
মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Previous Post

Application’s Permission – বাঁচুন ডিজিটাল চোরদের হাত থেকে!

Next Post

IMEI ডাটাবেজ চেক সিস্টেমে বাগ

Related Posts

স্মার্টফোনের ডিসপ্লে নিয়ে যত কথা

ব্যাক্তিগতভাবে আমার কাছে মনে হয় একটা স্মার্টফোনের সবচেয়ে প্রয়োজনীয় জিনিস হচ্ছে এর ডিসপ্লে। কারন হিসেবে বলা যেতে পারে…
পড়ুন

আসছে গরীবের পিক্সেল

এখনকার স্মার্টফোন মার্কেটের বেশিরভাগটাই দখল করে রেখেছে মিডরেঞ্জ বা হাইয়ার মিডরেঞ্জের ডিভাইসগুলো। প্রায় প্রতিটি কোম্পানি এই বাজার ধরতে…
পড়ুন