মিড বাজেটে স্যামসাং এর M সিরিজ

ভারতের বাজারে স্যামসাং ঘোষনা দিয়েছে তাদের নতুন দুই বাজেট ডিভাইস M10 ও M20 এর।
এই দুইটি ফোনই হতে যাচ্ছে স্যামসাং এর প্রথম নচ যুক্ত ডিসপ্লের স্মার্টফোন। দুইটির একটি ফোনেও থাকছেনা স্যামসাং এর ট্রেডমার্ক এমোলেড ডিসপ্লে। দুইটি ডিভাইসেই তারা ব্যাবহার করেছে IPS LCD ডিসপ্লে।

প্রথমেই তুলনামূলক সস্তা M10 ডিভাইসটি দেখে নেয়া যাক। এই ফোনটিতে আছে 6.22″ LCD ডিসপ্লে। যার রেজুলেশন HD+ এবং PPI ২৬৯। প্রসেসর হিসেবে আছে স্যামসাং এর নিজস্ব এক্সিনোস ৭৮৭০ অক্টাকোর প্রসেসর। স্যামসাং এর এই প্রসেসর টি বেশ পুরাতন। ফোনটি পাওয়া যাবে ২/১৬ এবং ৩/৩২ দুইটি ভার্শনে। ডুয়াল ব্যাক ক্যামেরার প্রাইমারি ১২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরাটির এপার্চার f/1.7 এবং সেকেন্ডারি ক্যামেরার এপার্চার f/2.2। ফ্রন্ট ক্যামেরায় আছে ১২০ ডিগ্রি ফিল্ড অভ ভিউ যুক্ত ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ডিভাইসটির ব্যাটারি ৩৪০০ mAh। কোন ধরনের ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবেনা ডিভাইসটি।

M10 এর তুলনায় M20 ডিভাইসটি বেশ শক্ত অবস্থানে থাকবে। এইটাতে দেওয়া হয়েছে ডিসপ্লে ৬.৩” FHD+ ডিসপ্লে (PPI 409)। আর প্রসেসর হিসেবে আছে এক্সিনোস ৭৯০৪ অক্টাকোর চিপসেট। যার দুইটি কোর এর ক্লকস্পিড ১.৮ গিগাহার্জ এবং বাকি ছয়টি কোরের স্পিড ১.৬ গিগাহার্জ। ফোনটি পাওয়া যাবে ৩/৩২ এবং ৪/৬৪ দুইটি র‍্যাম/রম ভার্শনে। ৫১২ জিবি পর্যন্ত মেমোরি কার্ড ব্যাবহারের সুযোগ থাকছে। M10 এর সাথে ব্যাক ক্যামেরা প্রায় একই হলেও এইটার ফ্রন্ট ক্যামেরা ৮ মেগাপিক্সেল। এই ফোনটির ব্যাটারি ৫০০০ mAh ও সাথে থাকছে USB type-C এবং ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। প্রয়োজনীয় সকল সেন্সর ই থাকছে এই ফোনে।

সফটওয়্যার হিসেবে দুইটা ফোনেই এনড্রয়েড ওরিও ৮.১.০ এবং স্যামসাং এক্সপেরিয়েন্স ৯.৫ থাকছে। দুইটি ফোনই পাওয়া যাবে কোরাল ব্ল্যাক ও ওশান ব্লু এই দুইটি ভিন্ন রঙ এ।

ভারতের বাজারে M10 ডিভাইসটির ২/১৬ ভার্শনটির দাম ধরা হয়েছে ৮০০০ রুপি এবং ৩/৩২ ভার্শনটির দাম ধরা হয়েছে ৯০০০ রুপি। আর M20 ডিভাইসটির ৩/৩২ ভার্শনটির দাম ১১০০০ রুপি ও ৪/৬৪ ভার্শনটির দাম ১৩০০০ রুপি। দুইটি ডিভাইস ই পাওয়া যাবে এমাজন ইন্ডিয়া ও স্যামসাং এর নিজস্ব স্টোরে।

এইবার দুইটি ফোন নিয়ে একটু তুলনামূলক আলোচনা করা যাক। দাম এবং স্যামসাং এর ব্রান্ড ভ্যালু হিসাব করলে এই দুইটা ডিভাইস চমৎকার। কিন্তু M10 ডিভাইসটি বেশ কিছু ব্যাপারে ঘাটতি আছে। যেমন এক্সিনোস ৭৮৭০ হল ২০১৬ সালের চিপসেট। এখনকার সময়ের গেইম বা এপ গুলো স্মুথলি চালাতে এই প্রসেসরের বেশ বেগ পেতে হবে। তাছাড়া এই ফোনের ডিসপ্লে রেজুলেশন ও কম। কন্টেন্ট দেখা যে এই ফোনে খুব একটা উপভোগ্য হবে না এইটা বলাই যায়। এছাড়াও ডিভাইসটিতে কোন প্রকার ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট নেই। এটা একটা ভোগান্তির বিষয় হতে পারে কারো কারো জন্য। আর এই ডিভাইসটির সবচেয়ে অপূর্ণতা হচ্ছে এটার সেন্সরে। Magnetometer, Compass
Gyroscope এই সেন্সর গুলো দেয়া হয়নি এই ফোনে।

তবে M20 ডিভাইসটা বেশ ভালো আশা জাগানিয়া। এইটাতে শার্প একটা ডিসপ্লে দেয়া হয়েছে, বেশ নতুন এবং পাওয়ারফুল প্রসেসর দেয়া হয়েছেম বড় ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে এবং একই সাথে ইউএসবি টাইপ সি এর সাহায্যে ১৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট ও দেওয়া হয়েছে। শুধু তাইনা, ফাস্ট চার্জিং এডাপ্টারও তারা বক্সের সাথেই দিবে। তাছাড়াও এই ডিভাইসটিতে সেন্সরের ক্ষেত্রেও কোন কৃপণতা করেনি স্যামসাং।

মুলত শাওমি, আসুস, রিয়েলমি সহ অন্যান্য ব্র‍্যান্ড যারা কম বাজেরটের মার্কেটে এক প্রকার রাজত্ব করছে তাদেরকে টেক্কা দিতেই স্যামসাং এর নতুন এই সিরিজ। এখন দেখার পালা যে তারা কতটা সফল হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Previous Post

জেনে নিন MI ক্যালকুলেটরের নতুন ফিচার

Next Post

ফ্লাস ড্রাইভ বা পেন ড্রাইভ বুট করুন ৫ মিনিটে।

Related Posts
৪৮ মেগাপিক্সেলের শাওমি রেডমি

শাওমি এবার নিয়ে আসছে ৪৮ মেগা পিক্সেলের ফোন

শাওমি ফ্যানদের জন্য সুখবর নিয়ে আসছে বছরের শুরুতেই। রেডমি সিরিজের ক্যমেরা নিয়ে সব সময়ই অভিযোগ ছিলো গ্রাহক দের,…
পড়ুন